শ্রীমঙ্গলে রেস্টুরেন্টে দুর্বৃত্তের হামলা-ভাংচুর-লুটপাট

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের একটি রেস্টুরেন্টে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার (১২ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ১১ টার দিকে ঢাকা সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কের শ্রীমঙ্গল অংশের মৌলভীবাজার সড়কে অবস্থিত জিলানী সুইট-মিট ও রেস্টুরেন্টে এই হামলার ঘটনাটি ঘটে৷

স্থানীয়রা জানান, একদল মুখোশ পরিহিত যুবক দেশীয় অস্ত্র হাতে নিয়ে হোটেলে ঢুকে সব কিছু ভাংচুর করে টাকা পয়সা লুট করে পালিয়ে যায়। এসময় হোটেলে কোন অতিথি ছিলেন না। হোটেলে তখন ডিউটিরত বয় আর হোটেলের মালিক শ্রীমঙ্গল পৌরসভার পৌর কাউন্সিলর মীর এম এ সালাম ছিলেন। তবে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

জিলানী সুইট-মিট এন্ড রেস্টুরেন্টের মালিক শ্রীমঙ্গল পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মীর এম এ সালাম জানান, রাত আনুমানিক সাড়ে এগারোটার দিকে একদল যুবক মুখোশ পড়ে পুরো চেহারা ঢেকে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালায় ৷ আমি তখন ভিতরে বাথরুমে যাওয়ার পথে ছিলাম। ঠিক তখনি কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই তারা হামলা চালায়। আমি ও আমার স্টাফরা  জান বাঁচাতে ভিতরের রান্নাঘরে গিয়ে আশ্রয় নেই। সেখানেও তারা দরজাতে আঘাত করতে থাকে। সন্ত্রাসীরা সংখ্যায় ৬ থেকে ৭ জন ছিলেন বলেও জানান তিনি ৷

তিনি আরোও জানান, ক্যাশ কাউন্টারে ঢুকে তারা প্রায় ৭০ থেকে ৮০ হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। এছাড়াও সব মিলে প্রায় ২ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। 

এদিকে এদিকে শ্রীমঙ্গল থানার ২০০ গজের ভিতরে এই ধরনের হামলায় আতংকিত হয়ে পড়েছেন ব্যবসায়ীরা ৷

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যবসায়ী আশংকা প্রকাশ করে বলেন, থানার গেইটের পাশেই এমন ঘটনা ঘটাতে আমরা হতবাক, থানার একেবারে সামনে এটা কি করে সম্ভব হতে পারে বলেও প্রশ্ন তুলছেন তাঁরা।

এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম নজরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসেছি। আমরা অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করব। দোষীদের ধরতে আমরা ইতিমধ্যে মাঠে কাজ করছি। আশা করছি খুব তাড়াতাড়ি জড়িতদের ধরতে পারবো।

খবরটি পড়া হয়েছে :9বার!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *