গোয়াইনঘাটে প্রেমিকাকে প্রত্যাখ্যান, নাবালিকাকে বিয়ে করলেন পুলিশ সদস্য

নিজস্ব প্রতিবেদক:: পেশায় পুলিশ তিনি। দীর্ঘ তিন বছর প্রেম করে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমিকাকে বাড়ি নিয়ে এসে তাকে বিয়ে না করে বিয়ে করেছেন এক নাবালিকাকে। আর এতেই ক্ষেপেছেন প্রেমিকা। অবস্থান নিয়েছেন প্রেমিকের বাড়ির সামনে। 

সিলেটের গোয়াইনঘাট এলাকায় ঘটেছে এমন ঘটনা। প্রেমিক সোলেমান মিয়া (২০) গোয়াইনঘাট উপজেলার পূর্ব জাফলং ইউনিয়নের নয়া গাঙেরপাড় গ্রামের আব্দুর রহমানের পুত্র। পেশায় তিনি একজন পুলিশ কনস্টেবল। তিনি হবিগঞ্জ পুলিশ লাইনসে কর্মরত আছেন বলে জানা গেছে। প্রেমিকা একই গ্রামের আবু তাহেরের মেয়ে সাবিনা বেগম (১৮)। তিনি জৈন্তাপুরের ইমরান আহমদ মহিলা কলেজের ছাত্রী। 

ঘটনার খোজ নিয়ে জানা গেছে, সোলেমান মিয়া ও সাবিনা বেগমের মধ্যে দীর্ঘ তিন বছর ধরে প্রেম চলে আসছিল। গত ৯ জানুয়ারি সাবিনা বেগমকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসেন সোলেমান। কিন্তু ১০ জানুয়ারি সাবিনাকে বিয়ে না করে জাফলং ইউনিয়নের আসামপাড়া গ্রামের মখলিছুর রহমানের মেয়ে ফাতেমা (১৬) নামের এক নাবালিকাকে বিয়ে করেন তিনি। ফাতেমা হাজী সোহরাব আলী স্কুল এন্ড কলেজের নবম শ্রেণীর ছাত্রী। 

এদিকে বিয়ের লোভ দেখিয়ে নিজ বাড়িতে নিয়ে এসেও বিয়ে না করে প্রতারণা করায় ক্ষোভে প্রেমিকা সাবিনা তাকে বিয়ের দাবীতে প্রেমিক সোলেমানের বাড়ীর সামনে অবস্থান নিয়েছেন। গত তিন দিন ধরে তিনি প্রেমিকের বাড়ির সামনে অবস্থান করছেন। তিনি ও তার স্বজনেরা অভিযোগ করেছেন সোলেমান পুলিশ সদস্য হওয়ায় প্রতিনিয়ত হুমকি দিচ্ছেন তাদের। 

তবে, বিষয়টি সম্পর্কে এখনো অবগত নন গোয়াইনঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল জলিল। তিনি বলেন, অভিযোগ পেলে বিষয়টি তদন্ত করে দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে।

খবরটি পড়া হয়েছে :635বার!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *