সুবর্ণচরে গণধর্ষণের প্রতিবাদে সিলেটে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে চার সন্তানের জননীকে গণধর্ষণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে নিপীড়ন বিরোধী ছাত্র-জনতা সিলেট। শুক্রবার (৪ জানুয়ারি) বিকাল ৩টায় সিলেটের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে এ  বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করা হয়।

মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচিতে সংহতি জানিয়ে উপস্থিত ছিলো সামাজিক সংগঠন আলোর মিছিল। নিপীড়ন বিরোধী ছাত্র জনতা’র সংগঠক রেজাউর রহমান রানা সভাপতিত্বে এবং নাবিল হোসেনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে সয়েল সাইন্স বিভাগের অধ্যাপক আবুল কাশেম, বাসদ (মার্কসবাদী) সিলেট জেলার আহ্বায়ক কমরেড উজ্জল রায়, কমিউনিস্ট পার্টি সিলেট জেলার সদস্য ও জালালাবাদ থানার সাধারণ সম্পাদক নিরঞ্জন দাস খোকন, বাসদ সিলেট জেলার সদস্য প্রণব জ্যোতি পাল, গণ জাগরণ মঞ্চ সিলেটের মুখপাত্র দেবাশীষ দেবু, এডভোকেট রনেন সরকার রনি, আলোর মিছিলের সৌরভ সরকার শুভ, বাংলাদেশ নারী মুক্তি কেন্দ্র সিলেট জেলার আহ্বায়ক তামান্না আহমেদ, বিপ্লবী ছাত্র-যুব আন্দোলনের সিলেট জেলার সংগঠক ইমরানা সুলতানা, ছাত্র ইউনিয়ন সিলেট জেলা সংসদের সভাপতি সরোজ কান্তি দে, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট সিলেট নগর শাখার সহ সভাপতি সঞ্জয় কান্ত দাস, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট মহানগর শাখার সভাপতি পাপ্পু চন্দ।

এসময় সংহতি জানিয়ে উপস্থিত ছিলেন বাসদ সিলেট জেলার আহ্বায়ক কমরেড আবু জাফর, বাংলাদেশ শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশন সিলেট জেলার সভাপতি সুশান্ত সিনহা, গণজাগরন মঞ্চ সিলেট জেলার সংগঠক রাজীব রাসেল, উদীচী সিলেট জেলার অর্থ সম্পাদক সন্দীপ দেব, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট শাবিপ্রবি শাখার সাধারণ সম্পাদক নাজিরুল আযম প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, ‘নির্বাচনের দিন রাতে নোয়াখালীর সুবর্ণচরে ৪ সন্তানের জননীকে নৌকা প্রতীকে ভোট না দেয়ার কারণে যে গণধর্ষণ করা হয়েছে তা শাসক গোষ্ঠীর নীতিহীন রাজনীতিরই প্রকাশ। গায়ের জোরে ক্ষমতা দখলের যে সংস্কৃতি তা এ ঘটনায় প্রমাণিত হয়েছে। বাস্তবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলে আওয়ামী লীগ গণবিরোধী অবস্থান নিচ্ছে। একচেটিয়া পুঁজিপতিদের স্বার্থে দেশের গণতন্ত্রের শেষ চিহ্নকে নিশ্চিহ্ন করতে চায়। নোয়াখালীতে সংগঠিত গণধর্ষণের মধ্যে দিয়ে বাস্তবে মত প্রকাশের সকল পথকেই রুদ্ধ করার চিত্র ফুটে উঠলো। জনগণের প্রবল চাপের মুখে গণধর্ষণের মূলহোতাকে গ্রেফতার করা হলেও এখনও পর্যন্ত তার বিরুদ্ধে চার্জশীট দেয়া হয়নি। আতীতে তনুসহ নানা ঘটনা প্রমাণ করে শাসক গোষ্ঠী এসকল ঘটনার বিচার করতে চায় না। এবারও তাই হতে চলছে।’

বক্তারা নোয়াখালীতে সংগঠিত ঘটনায় দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তি এবং ধর্ষকদের রাজনৈতিক শক্তি ও সংস্কৃতিকে প্রত্যাখ্যান করার আহ্বান জানান।

খবরটি পড়া হয়েছে :9বার!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *