কানাডার মসজিদে হামলাকারীর ৪০ বছরের জেল

কানাডার কুইবেকে মসজিদে হামলাকারী ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির একটি আদালত। ৪০ বছর পর তিনি প্যারোলের উপযুক্ত হবেন।

আইনজীবীরা তাকে ১৫০ বছর কারাদণ্ডের আবেদন করেন, যা কানাডায় কারাদণ্ডের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ। তবে বিচারক ফ্রাংকোস হুয়োট বিসোনেটের জীবদ্দশায় প্যারোলের সম্ভাবনা বিবেচনা করেন।

২০১৭ সালে আলেক্সান্ডার বিসোনেট (২৯) নামের ওই ব্যক্তি রাতে নামাজের সময় কুইবেক সিটি ইসলামিক কালচারাল সেন্টারে নির্বিচারে গুলি ছোড়েন। এতে ছয়জন নিহত ও আটজন আহত হন।

কুইবেকের সুপিরিয়র কোর্টের বিচারক সাজার রায় পড়ে শোনানোর সময় বলেন, শাস্তি প্রতিহিংসা হওয়া উচিত নয়।

কানাডার খুনের সর্বোচ্চ শাস্তি স্বয়ংক্রিয়ভাবে ২৫ বছর কারাদণ্ড। এর মধ্যে কোনো প্যারোলের সুযোগ নেই।

২০১৭ সালের ২৯ জানুয়ারি হামলার পর দুই বন্দুকধারীকে গ্রেপ্তারের কথা জানিয়েছিল পুলিশ। ওই সময় এ ঘটনাকে সন্ত্রাসী হামলা অভিহিত করে এর নিন্দা জানান কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো।

গত বছর মার্চে বিসোনেট হত্যার অভিযোগ স্বীকার করেন। তাকে ছয়জনকে হত্যার উদ্যোগের অভিযোগেও দোষী সাব্যস্ত করা হয়।

তিনি আদালতে ওই সময় বলেছিলেন, ‘আমি যা করেছি, তার জন্য লজ্জিত। আমি সন্ত্রাসী বা ইসলামফোবিক নই।’

বিচারক বলেছেন, কুসংস্কার থেকে তিনি এ ঘটনা ঘটিয়েছেন। তার মানসিক স্বাস্থ্যজনিত সমস্যা আছে।

উভয় পক্ষের আইনজীবীরা বলেছেন, বিচারকের দীর্ঘ সিদ্ধান্ত তারা বিশ্লেষণ করবেন এবং আপিলের সম্ভাবনা আছে।

বিচারকের রুলে ওই ঘটনায় বেঁচে যাওয়া অনেকেই হতাশ। যে মাত্রায় অপরাধ সাজাতে তার প্রতিফলন ঘটেনি।

খবরটি পড়া হয়েছে :10বার!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *