২০০ করে সবাইকে ছাড়িয়ে সাকিব

চার উইকেটের অপেক্ষা নিয়ে খেলতে নেমেছিলেন চট্টগ্রাম টেস্ট। দ্বিতীয় দিন বল হাতে তিন উইকেট নিয়ে ডাবলের আরো কাছে পৌঁছে গিয়েছিলেন। তবে তৃতীয় দিন সেই অপেক্ষা আর দীর্ঘ করলেন না। ক্যারিবীয় ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই কাইরন পাওয়েলকে নিজের ২০০তম শিকার বানিয়ে ইতিহাসে প্রবেশ করলেন সাকিব আল হাসান। 

প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটে ২০০ উইকেটের মালিক হলেন সাকিব।  আর ‘ডাবল সেঞ্চুরি’ করে ইতিহাসের সবাইকে ছাড়িয়ে গেলেন বিশ^সেরা এই অলরাউন্ডার।  সাদা পোশাকে ২০০ উইকেট এবং ৩০০০ রান নিয়ে অভিজাত ক্লাবে প্রবেশ করলেন সাকিব। ১৪ জনের এই ক্লাবে সবচেয়ে কম ম্যাচ খেলে সবার উপরে জায়গা করে নিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

সাকিবের আগে তিন হাজার রান এবং ২০০ নেয়ার ক্লাবে প্রবেশ করেছিলেন, ইয়ান বোথাম, ক্রিস কেয়ার্নস ,অ্যান্ড্রু ফ্লিনটফ, কপিল দেব, ইমরান খান, গ্যারি সোবার্স, রিচার্ড হ্যাডলি, শন পোলক, ড্যানিয়েল ভেটোরি, জ্যাক ক্যালিস, চামিন্দা ভাস,স্টুয়ার্ট ব্রড, শেন ওয়ার্ন । এদের মধ্যে সবচেয়ে কম ৫৫ ম্যাচ খেলে এই ক্লাবের সবার উপরে ছিলেন ইয়ান বোথাম। এবার সেই বোথামকে সরিয়ে সবার উপরে জায়গা করে নিলেন বাংলাদেশি অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। সেরা হতে সাকিব খেলেন মাত্র ৫৪টি ম্যাচ।

প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে টেস্ট সর্বোচ্চ উইকেট পাওয়ার তালিকায় সাকিবের ধারে কাছেও নেই কোনো বাংলাদেশি বোলার। উইকেট সংখ্যায় সাকিব ছাড়া ১০০ উইকেট পেয়েছেন কেবল মোহাম্মদ রফিক। আর সেখানে ২০০- এর অধিক উইকেট সাকিবের ঝুলিতে।

মজার বিষয় হলো সাদা পোশাকে সাকিব যখন ১০০ উইকেট নেন সেদিনও প্রতিপক্ষ ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কাকতালীয়ভাবে দিনটি ছিল ২৪ নভেম্বরই (২০১২ সাল)। আরও একটু পেছনে গেলে,  সাকিবরে ৫০তম উইকেট পাওয়া ভেন্যুটি ছিল চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম। নিজের ১৫ তম টেস্টে ৫০ করা সাকিব উইকেটে সেঞ্চুরি করেন ২৮তম টেস্টে।  আর ৫৪তম ম্যাচে উইকেটে ডাবল সেঞ্চুরি করে সাকিব পৌঁছে যান এক অনন্য উচ্চতায়।

২০০ উইকেট   হাজার রানের ডাবলে দ্রুততম সেরা পাঁচ:

সাকিব আল হাসান ৫৪

ইয়ান বোথাম ৫৫

ক্রিস কেয়ার্নস ৫৮

অ্যান্ড্রু ফ্লিনটফ ৬৯

কপিল দেব ৭৩

বাংলাদেশিদের মধ্যে টেস্ট ক্রিকেটে সর্বোচ্চ উইকেট

১/ সাকিব আল হাসান – ২০১* উইকেট

২/ মোহাম্মদ রফিক – ১০০ উইকেট

৩/ তাইজুল ইসলাম – ৮৮* উইকেট

৪/ মাশরাফি বিন মর্তুজা – ৭৮* উইকেট

৫/ শাহাদাত হোসেন রাজীব – ৭২* উইকেট

খবরটি পড়া হয়েছে :6বার!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *