ছাতকে আধুনিক সিমেন্ট কারখানা স্থাপন করতে চায় সৌদি প্রতিষ্ঠান

কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার কোম্পানি লিমিটেডের (কাফকো) মডেলে ছাতক সিমেন্ট কারখানার অব্যবহূত জমিতে একটি অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সিমেন্ট কারখানা স্থাপনের বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছে সৌদি আরবের উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান ইঞ্জিনিয়ারিং ডাইমেনশনস। এছাড়া সৌদি প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশের রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্পপ্রতিষ্ঠান জেনারেল ইঞ্জিনিয়ারিং ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানির (জেমকো) উৎপাদনক্ষমতা বৃদ্ধি ও পণ্যের বৈচিত্র্যকরণ প্রক্রিয়াতেও বিনিয়োগ করতে আগ্রহী।

বৃহস্পতিবার ভারপ্রাপ্ত শিল্প সচিব মো. আবদুল হালিমের সঙ্গে বৈঠককালে ইঞ্জিনিয়ারিং ডাইমেনশনসের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ এন হিজি এসব কথা বলেন। শিল্প মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বেগম পরাগ, বাংলাদেশ ইস্পাত ও প্রকৌশল করপোরেশনের চেয়ারম্যান মো. মিজানুর রহমান, বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশনের (বিসিআইসি) চেয়ারম্যান শাহ মো. আমিনুল হকসহ শিল্প মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও সৌদি প্রতিনিধি দলের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে বাংলাদেশে বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমার ও সাবস্টেশন উৎপাদন, সিমেন্টসহ সম্ভাবনাময় বিভিন্ন শিল্প খাতে বিনিয়োগের বিষয়ে আলোচনা হয়। এ সময় সফররত সৌদি ইঞ্জিনিয়ারিং ডাইমেনশনসের প্রেসিডেন্ট উল্লেখ করেন, দক্ষিণ এশিয়ায় বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ একটি সম্ভাবনাময় গন্তব্য। তিনি বলেন, বাংলাদেশের বিশাল জনগোষ্ঠী, অভ্যন্তরীণ বাজার ও পরিশ্রমী শ্রমশক্তি বিদেশী বিনিয়োগের জন্য চমত্কার সুযোগ সৃষ্টি করেছে। এসব সম্ভাবনা কাজে লাগিয়ে লাভবান হওয়ার জন্য বাংলাদেশে বিনিয়োগ করবেন সৌদি উদ্যোক্তারা। তিনি বাংলাদেশ সরকারের বিনিয়োগবান্ধব নীতির প্রশংসা করেন। সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশে বিনিয়োগবান্ধব অবকাঠামোর ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

ভারপ্রাপ্ত শিল্প সচিব আবদুল হালিম বলেন, সৌদি আরব বাংলাদেশের অন্যতম উন্নয়ন অংশীদার। দেশটিতে কর্মরত প্রবাসী শ্রমশক্তি বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে। তিনি জেমকোর আধুনিকায়ন, পণ্য বৈচিত্র্যকরণ ও ছাতক সিমেন্ট কারখানার অব্যবহূত জায়গায় কাফকোর মডেলে নতুন কারখানা স্থাপনের লক্ষ্যে একটি সমন্বিত প্রস্তাব পেশের জন্য ইঞ্জিনিয়ারিং ডাইমেনশনসের প্রেসিডেন্টকে পরামর্শ দেন। বাংলাদেশ সরকার সৌদি আরবের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্পর্ক জোরদারে আগ্রহী উল্লেখ করে তিনি জানান, প্রস্তাব পাওয়ার পর পরই এ বিষয়ে কার্যকর উদ্যোগ নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাম্প্রতিক সৌদি আরব সফরকালে শিল্প মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে ইঞ্জিনিয়ারিং ডাইমেনশনসের তিনটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হয়। এসব সমঝোতা স্মারকে বাংলাদেশের শিল্প খাতে বিনিয়োগের বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করা হয়। এর ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশে ব্যবসায়িক সম্পর্ক জোরদার ও শিল্প খাতে বিনিয়োগের ক্ষেত্র চিহ্নিতকরণের লক্ষ্যে ইঞ্জিনিয়ারিং ডাইমেনশনসের একটি প্রতিনিধি দল বাংলাদেশ সফর করছে। দলটি জেমকো ও ছাতক সিমেন্ট কারখানা পরিদর্শন করে বিনিয়োগের প্রাক-সম্ভাব্যতা যাচাই করছে।

খবরটি পড়া হয়েছে :4বার!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *